সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে জাতীয় প্রেসক্লাবে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

গুজব, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে সাংবাদিক, সমাজকর্মী ও সুধীজনদের নিয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ১৪ মার্চ, ২০২২ তারিখ সকালে ঢাকা মহানগর হেযবুত তওহীদের উদ্যোগে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে আয়োজিত এ আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন হেযবুত তওহীদের মাননীয় এমাম জনাব হোসাইন মোহাম্মদ সেলিম। হেযবুত তওহীদ ঢাকা বিভাগীয় আমির ডাক্তার মাহবুব আলম মাহফুজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ পিপলস পার্টির চেয়ারম্যান মো. বাবুল সরদার চাখারী, ঢাকা বিভাগ সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি ইকবাল হাসান কাজল, দৈনিক আজকের বার্তার সম্পাদক ও বরিশাল প্রেসক্লাবের সভাপতি কাজী নাসিরুদ্দিন বাবুল, বর্ষীয়ান সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব স্বনামধন্য গিটারবাদক এনামুল কবির, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুন সরকার রানা, হেযবুত তওহীদের নারী বিষয়ক সম্পাদক রুফায়দাহ পন্নী প্রমুখ।

সভায় হেযবুত তওহীদের মাননীয় এমাম জনাব হোসাইন মোহাম্মদ সেলিম জানান, ২০১৬ সালের ১৪ মার্চে নোয়াখালীর সোনাইমুড়িতে তাঁর নিজ বাড়িতে নির্মাণাধীন একটি মসজিদকে গীর্জা আখ্যা দিয়ে হামলা চালায় একটি ধর্মীয় উগ্রগোষ্ঠী। হামলাকারীরা মসজিদ নির্মাণে স্বেচ্ছায় শ্রম দিতে আসা হেযবুত তওহীদের দুই কর্মীকে পৈশাচিকভাবে জবাই করে হত্যা করে। সাম্প্রদায়িক ওই হামলায় হেযবুত তওহীদের শতাধিক কর্মী-সমর্থক গুরুতর আহত হয় এবং বেশ কয়েকটি বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগ, ভাঙচুর ও লুটপাট চালানো হয়। এসময় হেযবুত তওহীদের সদস্যদের উপর চালানো এই বর্বরোচিত হামলার বিচার, দেশে ধর্মীয় উগ্রবাদের বিস্তার রোধে সরকারের কঠোর পদক্ষেপ এবং এ ব্যাপারে সাংবাদিক ও সুধীজনদের আন্তরিক ভূমিকা সহ বেশ কিছু দাবি তুলে ধরেন মাননীয় এমাম। অনুষ্ঠানে আগত অন্যান্য অতিথিবৃন্দ ১৪ মার্চের ওই ঘটনায় গভীর শোক প্রকাশ করেন এবং দ্রুত বিচার আইনে অপরাধীদের শাস্তির দাবি জানান।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন দৈনিক বজ্রশক্তির সম্পাদক ও হেযবুত তওহীদের গণমাধ্যম বিষয়ক সম্পাদক এস এম সামসুল হুদা, প্রচার সম্পাদক শফিকুল আলম উখবাহ, ১৪ মার্চের হত্যাকাণ্ডে নিহত শহীদ সোলায়মান খোকনের বোন ইয়াসমিন ইলা সহ হেযবুত তওহীদের কেন্দ্রীয় ও ঢাকা বিভাগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

জনপ্রিয় পোস্টসমূহ