নরসিংদী জেলা হেযবুত তওহীদের উদ্যোগে শিবপুর উপজেলাস্থ মুনসেফেরচর ইটাখোলা বাসস্ট্যান্ডে জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাসবাদ ও সাম্প্রদায়িকতাবিরোধী এক বিশাল সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত ২৪ নভেম্বর ২০১৭ ঈসায়ী তারিখ বিকাল ৩ টায় অনুষ্ঠিত এ জনসভায় প্রধান বক্তা হিসেবে ভাষণ দান করেন হেযবুত তওহীদের এমাম হোসাইন মোহাম্মদ সেলিম। অনুষ্ঠানটিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পুটিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি খন্দকার হাসান উল সানী এলিছ।

প্রধান বক্তার ভাষণে হেযবুত তওহীদের এমাম হোসাইন মোহাম্মদ সেলিম বলেন, মানুষ হিসেবে প্রতিটি মানুষকে তার পরিবার, তার সমাজ, তার রাষ্ট্র এবং সমগ্র পৃথিবী নিয়ে ভাবতে হবে। বর্তমানে তথ্যপ্রযুক্তির কল্যাণে পৃথিবী একটা গ্রামে পরিণত হয়েছে। পৃথিবীর কোথাও কোন ঘটনা ঘটলে এর প্রভাব সব দেশের উপরেই কম-বেশি পড়ে। সম্প্রতি ধর্মের নামে সৃষ্ট বিভিন্ন উগ্রবাদী গোষ্ঠীগুলোর কর্মকাণ্ডে বিশ্বজুড়ে সৃষ্টি হয়েছে ভয়াবহ আতঙ্ক এবং ইসলামের প্রতি ঘৃণা ও বিদ্বেষ। এর পেছনে প্রকৃতপক্ষে সাম্রাজ্যবাদী শক্তিগুলো কাজ করে যাচ্ছে। তারা এখন মুসলমানদের দেশকে টার্গেট করেছে। এ জন্য তারা চায় আল্লাহ-রসুলের বিরুদ্ধে অপবাদ, অপপ্রচার করে মুসলমানদেরকে উত্তেজিত করে মুসলমানদেরকে ক্ষেপিয়ে তুলে তাদেরকে দিয়ে ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করতে। যাতে তারা প্রমাণ করতে পারে যে মুসলমানরা উগ্র, মুসলমানরা সন্ত্রাসী। তারা চায় মুসলমানদেরকে সন্ত্রাসী আখ্যা দিয়ে ভয়ানক অস্ত্র নিয়ে হামলার বৈধতা আদায় করতে। সুতরাং তাদের পাতা এ ফাঁদে পা দেওয়া যাবে না।

আমাদেরকে বুঝতে হবে ইসলাম সন্ত্রাসবাদকে সমর্থন করে না। একশ্রেণির ধর্মব্যবসায়ীদের বিতর্কিত ব্যাখ্যার সুযোগে কিছু বিভ্রান্ত মানুষ ইসলামের নামে সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালাচ্ছে। এদেরকেই আবার মদদ দিয়ে বড় করে তুলছে ঐ পরাশক্তিগুলো। এই সুযোগে তারা আমাদের দেশগুলোকে ধ্বংস করে দিচ্ছে। এভাবে ইরাক ধ্বংস করা হলো, সিরিয়া ধ্বংস করা হলো, আফগানিস্তান মাটির সাথে মিশে গেল, লিবিয়া গণকবরে পরিণত হলো, ইয়েমেনে দুর্ভিক্ষ চলছে, আফ্রিকায় না খেয়ে মানুষ মারা যাচ্ছে। আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ মিয়ানমার থেকে দশ লক্ষ মুসলমানকে বাড়ি-ঘর ছাড়া করা হয়েছে। এই মুহূর্তে সাড়ে ছয় কোটি মুসলমান উদ্বাস্তু বিশ্বের বিভিন্ন দেশের রাস্তায় রাস্তায় ভিক্ষা করছে, দিন যাপন করছে, রাত্রি পার করছে।
বাংলাদেশকে ঘিরেও বর্তমানে একই ধরনের দেশি-বিদেশি চক্রান্ত ও প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। বর্তমান সঙ্কট থেকে জাতিকে বাঁচাতে হলে আমাদেরকে সতর্ক হতে হবে, ধৈর্য্য ধরতে হবে। এছাড়াও আমাদেরকে আল্লাহর কলেমা লা ইলাহ ইল্লাল্লাহকে ভিত্তি করে সকল প্রকার অন্যায়, অবিচারের বিরুদ্ধে ও ন্যায়ের পক্ষে ঐক্য গঠন করতে হবে। তাহলে আমরা হব মো’মেন। আল্লাহ হবেন আমাদের অভিভাবক। আর আল্লাহ যাদের অভিভাবক তাদেরকে কেউ ধ্বংস করতে পারবে না। বরং ন্যায়-নীতির শক্তিতে, সততার ভিত্তিতে আমরাই হব পৃথিবীর পরাশক্তি।

প্রধান অতিথি খন্দকার হাসান উল সানী এলিছ তার বক্তব্যে হেযবুত তওহীদের কার্যক্রমকে ধন্যবাদ জানিয়ে পুটিয়া ইউনিয়নবাসীর পক্ষ থেকে সর্বাত্মক সহযোগিতা করার আশ্বাস প্রদান করেন।

পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াতের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের শুরু হয়। তেলাওয়াত করেন জনাব রমজান আলী। বিশেষ অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পুটিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ জনাব মেজবাহ উদ্দিন সরকার, শিবপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক মো. মনির হোসেন, ৮ নং ওয়ার্ড সদস্য মো. রতন মিয়া, ৬ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ ও যুগ্ম আহ্বায়ক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড সভাপতি আব্দুল হান্নান সরকার, ঢাকা মহানগর হেযবুত তওহীদের সভাপতি মো. আলী হোসেনসহ আরো অনেকে।

See Photos
See Video