রিয়াদুল হাসান

হৃদয় আমার বলছে আমায় গাঁজাখোরি পদ্য লিখ,
ক-খ-গ-ঘ লিখছে সবাই, তুমিই কেন মৌন থাকো?
বাস্তবতার নরক ভুলে বাসন্তি রঙ চিত্র আঁকো।
ভুলতে হবে সমাজটাকে, ভুলতে হবে ক্ষুধার জ্বালা,
ফাগুন দিনের উন্মাদনায় খোপায় জড়াও পুষ্প মালা,
বৈশাখেরই লাঞ্ছিতা বোন বসন্তে হোক সহনশীলা।
রাজন কিবা আইলান যেন স্মৃতির ঘরে দেয় না উঁকি,
দগ্ধ হওয়া মানুষদেরও ভুলতে কারো নেই যে বাকি।
কষ্ট জাগাও হৃদয় খুঁড়ে? সুখের ভুতে কিলায় নাকি?
শুনছি কানে বিশ্ব জুড়ে যুদ্ধ হবে সাপ নেউলে,
আমরা হবো দর্শক তার – দেখব শুধু দুচোখ মেলে,
একটা বোমাও পড়বে না এই লাল সবুজের মায়ের কোলে।
আজকে সবাই করব শুধু লাভ বার্ডের ঠোকাঠুকি,
রোম নগরী পুড়ে গেলে নিরোর তাতে যায় আসে কি?
দীপক রাগের হোমাগ্নিতে কাম সাধনায় মগ্ন থাকি।
মাথার জমিন খুঁড়ে খুঁজি শব্দ গাঁথায় অশ্লীলতা,
নন্দিত হোক নোঙরামি আর বঞ্চিত হোক মানবতা,
ভালোবসার জায়গাটুকু দখল করুক অসভ্যতা।