বাউনিয়া বাজারে জঙ্গিবাদবিরোধী সুধী সমাবেশ

হেযবুত তওহীদের আমির মসীহ উর রহমান বলেন, বর্তমানে জঙ্গিবাদের নামে যে অমানবিক পৈশাচিকতা, ভয়াবহতা চলছে তা ইসলামের শিক্ষা নয়। বরং এটা ইসলামের গায়ে সন্ত্রাসের কালি লেপন করছে। তিনি বলেন, এটা এই দেশের বিরুদ্ধে এবং পবিত্র ধর্মের বিরুদ্ধে এক গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ। ১৬ জুলাই, ২০১৬ রোজ শনিবার রাজধানীর তুরাগ থানাধীন বাউনিয়া বাজারস্থ বঙ্গবন্ধু সৈনিক ক্লাবে আয়োজিত “জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাসবাদ-সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে আমরা ঐক্যবদ্ধ” শীর্ষক সুধী সমাবেশে তিনি এই কথা বলেন।

জনাব মসীহ উর রহমান বলেন, “প্রশ্ন হচ্ছে, একজন মুসলমান কেন সন্ত্রাসী হবে? আল্লাহ ও তাঁর রসুলের প্রতি ঈমান থাকা সত্ত্বেও, তাঁদের প্রতি গভীর ভালোবাসা থাকা সত্ত্বেও এই মানুষগুলো কেন এমন কাজ করবে যা প্রকারান্তরে ইসলামের সর্বনাশ ডেকে আনবে? বাস্তবতা এই যে, মানুষ যখন প্রকৃত সত্যের সন্ধান না পায়, তার আত্মা যখন বিচলিত থাকে তখন খুব সহজেই তাকে বিভ্রান্ত করে বিপথে নিয়ে যাওয়া সম্ভব হয়। আপনারা নিজেরা বিচার করুন, আজকে পৃথিবীময় আমরা যে ইসলাম দেখছি সেটা কি রসুলের আনীত ইসলাম? আল্লাহর রসুলের ইসলাম বর্বর আরবদের সভ্য করেছিল। আজকের ইসলাম আমাদের বর্বরতার দিকে নিয়ে যাচ্ছে। রসুলের ইসলাম ঐক্যহীন, গোত্রে গোত্রে কলহে লিপ্ত জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করেছিল, পৃথিবীর সবচেয়ে পশ্চাৎপদ জাতিকে শ্রেষ্ঠত্বের আসনে অধিষ্ঠিত করেছিল। আর আজকে আমরা দলে দলে বিভক্ত হয়ে নিজেদেরকে হত্যা করছি, নিজেরা কামড়াকামড়ি করে আবার পৃথিবীর লাঞ্ছিত, অপমানিত জাতিতে পরিণত হয়েছি। আমরা কি নিজেদের আজকের এই অবস্থার কারণ বিশ্লেষণ করেছি? যদি করতাম তবে দেখতাম, আমাদের পবিত্র ধর্ম আজ তার স্বস্থানে নেই। ধর্মের নামে আজ কেউ ব্যবসা করছে, কেউ অপ-রাজনীতিতে একে ব্যবহার করছে, কেউ সন্ত্রাস বিস্তারে একে ব্যবহার করছে। তবে কি আমরা আমাদের চোখের সামনে এভাবে এই জাতিকে ধ্বংস হয়ে যেতে দেব? আমরা তা হতে দিতে পারি না। আজ সময় এসেছে সত্যিকার ইসলাম আর বিকৃত ইসলামের মধ্যে সুস্পষ্ট রেখা টানার। ইসলামকে আবার তার মহিমান্বিত রূপে ফিরিয়ে আনার দায়িত্ব আমাদের সকলের।”

জনপ্রিয় পোস্টসমূহ