20160722_165225-2

 

হেযবুত তওহীদের উদ্যোগে চট্টগ্রামে ‘জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস দমনে জনসম্পৃক্ততার বিকল্প নাই’ শীর্ষক আলোচনা সভা ও র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২২ জুলাই ২০১৬ শুক্রবার হেযবুত তওহীদের চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয়ে এ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। এর আগে চট্টগ্রাম জোলারহাট হানিমুন টাওয়ার থেকে একটি বিশাল র‌্যালি বের হয়। র‌্যালিটি পাহাড়তলি অলংকার মোড় হয়ে এ.কে খান সড়ক ঘুরে পুনরায় হানিমুন টাওয়ারে গিয়ে শেষ হয়।

হেযবুত তওহীদের চট্টগ্রাম বিভাগীয় আমীর মো. সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন হেযবুত তওহীদের মুখপাত্র শফিকুল আলম উখবাহ্। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, বর্তমান প্রচলিত ইসলাম, ইলামই নয়। ইসলাম এসেছে মানবজাতির মুক্তির লক্ষ্যে, সত্য, ন্যায়, হক প্রতিষ্ঠার জন্য। অথচ এখন সেই ইসলামের দোহাই দিয়ে সন্ত্রাস-জঙ্গীবাদ সৃষ্টি করা হচ্ছে। প্রচলিত ইসলাম সঠিক হলে সমাজে এত অন্যায়-অত্যাচার-অবিচার, মারামারি-হানাহানি-খুনাখুনি-রক্তপাত, হত্যা-ধর্ষণ, দুর্নীতি তথা অশান্তি থাকত না। কারণ ইসলাম শব্দের আক্ষরিক অর্থই শান্তি। সুতরাং শান্তির ধর্মে এতো অশান্তি থাকতে পারে না।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের বর্তমান সংকটময় পরিস্থিতিতে জঙ্গীবাদ নির্মূলে সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর এই আহ্বানে সাড়া দিয়ে হেযবুত তওহীদ ঢাকাসহ দেশব্যাপী গণসচেতনতামূলক আলোচনা সভা, সেমিনার, মতবিনিময় সভা, র‌্যালিসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে যাচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, আল্লাহ রসুলের সেই প্রকৃত ইসলাম জাতি, ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সব মানুষকে নিয়ে একটি শান্তিপূর্ণ সমাজব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করেছিল। প্রতিটি মানুষ নির্বিঘ্নে নির্ভয়ে চলাফেরা ও জীবনযাপন করতে পারত। কারো বিশ্বাসের উপর কোনো জবরদস্তি ছিল না। মানুুষের জীবন-সম্পদ ও সম্মানের পূর্ণ নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। আর জঙ্গিবাদীরা সাধারণ মানুষের মধ্যে নৃশংস উপায়ে মানুষ হত্যা করে ত্রাসের সৃষ্টি করতে চাচ্ছে। আল্লাহ রসুলের ইসলাম ঐক্যহীন বিচ্ছিন্ন জনগোষ্ঠীকে ঐক্যবদ্ধ করেছিল, শত্রুকে ভাই বানিয়েছিল আর আজকে ইসলামের নামে ঐক্যবদ্ধ জাতিকে ঐক্যহীন করা হচ্ছে, ভাইকে শত্রু বানানো হচ্ছে, এক মুসলিম জাতিকে হাজারো মাজহাব ফেরকায় বিভক্ত করা হচ্ছে। আল্লাহ রসুলের ইসলাম স্বার্থপর আত্মকেন্দ্রিক মানুষকে নিঃস্বার্থভাবে মানবতার কল্যাণে উৎসর্গিকৃত প্রাণ মানুষে পরিণত করেছিল, সকল অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী ও সোচ্চার মানুষ তৈরি করেছিল। আর এদের ইসলাম সমাজের অন্যায় অশান্তি থেকে মুখ ফিরিয়ে স্বার্থপরের মতো ব্যক্তিগত জীবন ও আমল নিয়ে ব্যস্ত থাকার শিক্ষা দিচ্ছে। এ ইসলাম কখনো আল্লাহর রসুলের ইসলাম হতে পারে না।

জঙ্গিবাদ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘শুধু আইন কিংবা শক্তি প্রয়োগ করে জঙ্গিবাদ নির্মূল সম্ভব নয়। কারণ জঙ্গিবাদ বিপথগামী হলেও একটি আদর্শিক পথ। এরা টাকার লোভে কিংবা ক্ষমতার লোভে নিজেদের প্রাণ উৎসর্গ করছে না। এমতাবস্থায় তাদেরকে ফেরানোর উপায় একটাই- আল্লাহর রসুলের জিহাদ ও জঙ্গিবাদীদের জিহাদেও বৈপরীত্য পরিষ্কারভাবে তুলে ধরতে হবে। অর্থাৎ জঙ্গিবাদ নির্মূলে প্রয়োজন আদর্শিক লড়াই। আর এ আদর্শ একমাত্র হেযবুত তওহীদের কাছে আছে।’ এহেন পরিস্থিতিতে হেযবুত তওহীদের পক্ষ থেকে জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সকলকে এক ছাতার নিচে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন হেযবুত তওহীদের ফেনী জেলা আমীর দিল আফরোজ, বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের পাহাড়তলি থানা শাখার সভাপতি মো. জাহাঙ্গীর আলম, পাহাড়তলি থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোজাফফর আহামেদ মাসুম, হেযবুত তওহীদের সদস্য জান্নাতুল ফেরদৌস কনকসহ স্থানীয় নানা শ্রেণিপেশার মানুষ।

আনুষ্ঠানে আগত বক্তাগণ

জনাব জাহাঙ্গীর আলম

বক্তব্য রাখছেন বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের সভাপতি জনাব জাহাঙ্গীর আলম

জনাব শফিকুল আলম উখবা

বক্তব্য রাখছেন হেযবুত তওহীদের মুখপাত্র শফিকুল আলম উখবাহ্

 

 

 

 

 

 

 

 

র‌্যালীর ফটো

P1110348-1 P1110358

 

মিডিয়ায় প্রচার

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

vv