কিশোরগঞ্জের ভৈরবে সুধী সমাবেশ ও র‌্যালি

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে হেযবুত তওহীদের উদ্যোগে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে সুধী সমাবেশ ও র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়েছে। এসময় অংশগ্রহণকারীদের হাতে জঙ্গিবাদবিরোধী বিভিন্ন স্লোগান সম্বলিত ফেস্টুন, প্ল্যাকার্ড লক্ষ করা যায়। অনুষ্ঠানে হেযবুত তওহীদের নিবেদিতপ্রাণ কর্মীদের পাশাপাশি সর্বস্তরের শত শত জনসাধরণকে স্বতস্ফূর্তভাবে অংশ নিতে দেখা যায়।
১১ই আগস্ট বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টায় ভৈরব বাসস্ট্যান্ড থেকে হেযবুত তওহীদের ঢাকা বিভাগীয় আমির মাহবুব আলমের নেতৃত্বে একটি বিশাল র‌্যালি বের হয়ে ভৈরব দুর্জয়মোড় থেকে ভৈরব উপজেলা হয়ে ভৈরব বাজারের গুরুত্বপূর্ণ সড়কসমূহ প্রদক্ষিণ করে মুক্তিযোদ্ধা চত্বরে এসে শেষ হয়। পরে সেখানে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
অনুষ্ঠানে মুখ্য আলোচক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন হেযবুত তওহীদের ঢাকা বিভাগীয় আমির মাহবুব আলম। আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে ছিলেন আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ভৈরব শাখার সভাপতি এম.আর. সোহেল, মুক্তিযোদ্ধা যুব কমান্ডের নেতা মো. সেলিম মিয়া, হেযবুত তওহীদের কিশোরগঞ্জ জেলা আমির আব্দুর রব, নরসিদী জেলা আমির মাসুদুর রহামান জুয়েল প্রমুখ। বক্তারা বলেন, সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ কোন ধর্মই সর্মথন করে না। কতিপয় স্বার্থান্বেষী আলেম নামধারী ধর্মব্যবসায়ী মোল্লা শ্রেণি ধর্মের অপব্যাখ্যা দিয়ে এদেশের তরুণদের জঙ্গিবাদের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। দীর্ঘ ২১ বছর ধরে হেজবুত তওহীদ ধর্মের প্রকৃত শিক্ষা সর্বস্তরের মানুষের মাঝে তুলে ধরে আসছে এবং সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে নিঃস্বার্থভাবে কাজ করে যাচ্ছে। বক্তারা দেশের স্বার্থে, জাতির স্বার্থে জঙ্গিবাদবিরোধী গণপ্রতিরোধ গড়ে তোলারও আহ্বান জানান।
এময় হেযবুত তওহীদের কিশোরগঞ্জ জেলা আমির আব্দুর রবের সঞ্চালনায় হেযবুত তওহীদের নেতা-কর্মী, স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী, মুক্তিযোদ্ধা, স্থানীয় গণ্যমাণ্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য ও গণমাধ্যম কর্মীদের উপস্থিতি লক্ষ করা যায়।

জনপ্রিয় পোস্টসমূহ