রাজধানীর কদমতলীতে জঙ্গিবাদবিরোধী র‌্যালী ও সমাবেশ | হেযবুত তওহীদ

রাজধানীর কদমতলীতে জঙ্গিবাদবিরোধী র‌্যালী ও সমাবেশ

সমাবেশে মুখ্য আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন হেযবুত তওহীদের সহকারী সাহিত্য সম্পাদক রাকিব আল হাসান।আরও উপস্থিত ছিলেন কদমতলী থানা শ্রমিক লীগের সভাপতি মো. আব্দুল হামিদ, ডেমরা থানা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাসেম পাটোয়ারি ও দনিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মান্নান সরদার।
সমাবেশে মুখ্য আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন হেযবুত তওহীদের সহকারী সাহিত্য সম্পাদক রাকিব আল হাসান।আরও উপস্থিত ছিলেন কদমতলী থানা শ্রমিক লীগের সভাপতি মো. আব্দুল হামিদ, ডেমরা থানা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাসেম পাটোয়ারি ও দনিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মান্নান সরদার।

হেযবুত তওহীদের উদ্যোগে রাজধানী ঢাকার কদমতলীতে গত ৪ অগাস্ট ২০১৬ বিকালে ‘সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে আমরা ঐক্যবদ্ধ’ শীর্ষক আলোচনা সভা, র‌্যালি ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। রাজধানীর কদমতলী থানার দক্ষিণ দনিয়া আলহাজ্ব হাবিবুর রহমান মোল্লা সড়ক সংলগ্ন ৬১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে উক্ত আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। আলোচনা সভা শেষে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়ে কদমতলী থানা রোড হয়ে পুনরায় একইস্থানে গিয়ে মানববন্ধন করে।
হেযবুত তওহীদের ঢাকা মহানগরীর আমির মো. আলী হোসেনের সভাপতিত্বে সমাবেশে মুখ্য আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন হেযবুত তওহীদের সহকারী সাহিত্য সম্পাদক রাকিব আল হাসান। অনুষ্ঠানের মুখ্য আলোচক তার বক্তব্যে বলেন, যে জঙ্গিবাদের করাল থাবায় ধ্বংস হয়ে গেছে আফগানিস্তান, ইরাক, সিরিয়া, লিবিয়া ইত্যাদি একটার পর একটা মুসলিম দেশ সেই একই জঙ্গিবাদ হানা দিয়েছে আমাদের প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশে। এর বিরুদ্ধে কেবল সরকার বা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর একক প্রচেষ্টা নয় বরং আমাদের সকলকে সোচ্চার হতে হবে, ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। এই জঙ্গিবাদকে সমূলে উৎপাটন করে দেশকে রক্ষা করতে হবে আমাদেরকেই। এর জন্য কেবল শক্তি প্রয়োগই যথেষ্ট নয়, প্রয়োজন আদর্শিক লড়াই। জঙ্গিদেরকে যেহেতু উৎসাহিত করা হয় কোর’আন-হাদিসের বিকৃত ব্যাখ্যা থেকে তাই কোর’আন-হাদিস থেকেই এর সঠিক ব্যাখ্যা উপস্থাপনের মাধ্যমে এই বিকৃত আদর্শের অসারতা প্রমাণ করতে হবে। প্রমাণ করে দিতে হবে এই পথে কেবল তারা দুনিয়াই হারাচ্ছে না, জাহান্নামের পথও সুগম করছে।
তিনি আরো বলেন, গুলশান, শোলাকিয়ার ঘটনার পর থেকে অনেক রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে গণসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করছে। কিন্তু হেযবুত তওহীদ ২০০৯ সন থেকে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে নানা কার্যক্রম চালিয়ে আসছে। আর বিগত চার বছরে দেশের সর্বত্র সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ, অপরাজনীতি ও ধর্মব্যবসার বিরুদ্ধে ৪০ হাজারের উপরে পথসভা, জনসভা, সেমিনার করে, বই, পত্রিকা, হ্যান্ডবিল বিতরণ ইত্যাদি কার্যক্রম চালিয়েছে। হেযবুত তওহীদ বহুদিন থেকে বলে আসছে জঙ্গিবাদ নির্মূলের সঠিক আদর্শটি তাদের কাছে আছে, সেই আদর্শ মানুষের মাঝে ছড়িয়ে দিতে পারলে আর কেউ যেমন জঙ্গিতে পরিণত হবে না তেমনই অনেক জঙ্গিও তাদের ভুল বুঝে এই ভ্রান্ত পথ ত্যাগ করবে।
তিনি বলেন, জঙ্গিবাদীদের কর্মকা- যে ইসলাম সমর্থন করে না বরং এটি ইসলামকে ধ্বংস করার জন্য পশ্চিমা ষড়যন্ত্রকারীদের একটি চক্রান্ত তা মানবজাতির সামনে তুলে ধরা প্রত্যেক মোমেন-মুসলমানের দায়িত্ব এবং কর্তব্য। হেযবুত তওহীদের সদস্যরা নিজেদের জীবন সম্পদ উৎসর্গ করে সেই কাজটিই করে যাচ্ছে।
অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন কদমতলী থানা শ্রমিক লীগের সভাপতি মো. আব্দুল হামিদ, ডেমরা থানা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাসেম পাটোয়ারি ও দনিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মান্নান সরদার।
কদমতলী থানা শ্রমিক লীগের সভাপতি মো. আব্দুল হামিদ তার বক্তব্যে বলেন, হেযবুত তওহীদ প্রকৃত ইসলামের কথা বলছে। যেদিন থেকে হেযবুত তওহীদের সংস্পর্শে এসেছি সেদিন থেকে ইসলামের প্রকৃত রূপ জানতে পেরেছি। হেযবুত তওহীদ যে আদর্শ প্রচার করে তাতে সহযোগিতা করা সকলের একান্ত কর্তব্য। তিনি হেযবুত তওহীদের এমাম হোসাইন মোহাম্মদ সেলিমের কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘যতদিন পর্যন্ত সেলিম ভাই থাকবেন ততদিন কোন ধর্মান্ধ মৌলবাদী গোষ্ঠী ধর্মের নামে উম্মাদনা সৃষ্টি করে মানুষ হত্যা করতে পারবে না। কারণ হেযবুত তওহীদের ইমাম প্রকৃত ইসলামের কথা বলেন। আর প্রকৃত ইসলাম কখনো এরকম জঙ্গিবাদী কর্মকা- বা মানুষ হত্যাকা-কে সমর্থন করে না।’
তিনি নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীর ১৪ মার্চের হেযবুত তওহীদের এমামের বাড়িতে হামলা ও তা-বলীলার কথা উল্লেখ করে বলেন, হোসাইন মোহাম্মদ সেলিম ধর্মের নামে চলা সকল গোঁড়ামি, কুসংস্কার, অধর্মের বিরুদ্ধে কথা বলায় তাকে হত্যা করার জন্য ধর্মব্যবসায়ীরা তার বাড়িতে হামলা, অগ্নিসংযোগ, লুটপাট চালায়। আজ দুঃখের সাথে বলতে হয়- সেদিন মসজিদ নির্মাণে স্বেচ্ছাশ্রম দিতে আসা হেযবুত তওহীদের নিরাপরাধ দুই সদস্যকে জবাই করে হত্যা করে তাদের পায়ের রগ কেটে, চোখ উপড়ে ফেলে, পেট্রল ঢেলে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়। সেলিম ভাই যতদিন বেঁচে থাকবে ততদিন ষড়যন্ত্রকারীদের কোনও ষড়যন্ত্র সফল হবে না এবং বাংলার মাটিতে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের ঠাঁই হবে না।
ডেমরা থানা আ.লীগের সাবেক সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাসেম পাটোয়ারি বলেন, ‘১৯৭১ সালে পাক হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে যুদ্ধ কওে বাংলাদেশ স্বাধীন করেছিলাম। কিন্তু আজ সেই সোনার বাংলাদেশে ধর্মান্ধ একটি গোষ্ঠী ইসলামের নামে মানুষ হত্যা করে বাংলাদেশকে অস্থিতিশীল করতে চায়, শান্তির ধর্ম ইসলামের গায়ে কালিমা লিপ্ত করতে চায়। আল্লাহর রসুল ইসলাম কখনো মানুষ হত্যার শিক্ষা দেননি। হেযবুত তওহীদ আল্লাহর রসুলের সেই শিক্ষাই মানুষের সামনে তুলে ধরছে।’ তিনি হেযবুত তওহীদের এই মহৎ কাজকে সাধুবাদ জানান এবং সকলকে হেযবুত তওহীদের সহযোগিতায় এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।
দনিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মান্নান সরদার বলেন, সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে হেযবুত তওহীদ যে কাজ করছে তা সত্যিই প্রশংসার দাবিদার। হেযবুত তওহীদের আদর্শকে যদি সবার মাঝে ছড়িয়ে দেয়া যায় তাহলে এদেশ থেকে জঙ্গিবাদ হটানো সম্ভব হবে।
র‌্যালিতে জঙ্গিবাদবিরোধী বিভিন্ন স্লোগান সম্বলিত ব্যানার, ফেস্টুন, প্ল্যাকার্ডসহ শত শত নারী পুরুষ স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করেন।

র‌্যালী

IMG_2058
হেযবুত তওহীদের উদ্যোগে রাজধানী ঢাকার কদমতলীতে জঙ্গিবাদবিরোধী র‌্যালি
IMG_2055
হেযবুত তওহীদের উদ্যোগে রাজধানী ঢাকার কদমতলীতে জঙ্গিবাদবিরোধী র‌্যালি
IMG_2053
হেযবুত তওহীদের উদ্যোগে রাজধানী ঢাকার কদমতলীতে জঙ্গিবাদবিরোধী র‌্যালি
IMG_2055
হেযবুত তওহীদের উদ্যোগে রাজধানী ঢাকার কদমতলীতে জঙ্গিবাদবিরোধী র‌্যালি

মিডিয়ায় প্রচার

Search Here

জনপ্রিয় পোস্টসমূহ

বরিশালে জঙ্গিবাদবিরোধী সমাবেশ ও র‌্যালি অনুষ্ঠিত

September 22, 2016

জঙ্গিবাদবিরোধী আদর্শ সর্বস্তরের মানুষের মাঝে ছড়িয়ে দিতে বর্তমানে হেযবুত তওহীদের উদ্যোগে চলছে দেশব্যাপী সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদবিরোধী নানামুখী কার্যক্রম। এরই ধারাবাহিকতায় বরিশাল জেলার উজিরপুর উপজেলায় ‘জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাসবাদ-সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে আমরা ঐক্যবদ্ধ’ এই স্লোগানে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৬ তারিখ সকালে উজিরপুর উপজেলার লঞ্চঘাট থেকে একটি শোভাযাত্রা বের হয়ে উজিরপুর বাজার প্রদক্ষিণ করে টেম্পুস্ট্যান্ড মোড়, উজিরপুর থানা, […]

আরও→

চট্টগ্রামে বাংলাবাজারে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে হেযবুত তওহীদের সমাবেশ

September 8, 2016

  জঙ্গিবাদবিরোধী আদর্শ মানুষের মাঝে ছড়িয়ে দিতে দেশব্যাপী মানবতার কল্যাণে নিবেদিত হেযবুত তওহীদ আন্দোলনের চলমান কার্যক্রমের অংশ হিসাবে চট্টগ্রামে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে এক সুধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশ শেষে বর্ণাঢ্য র‌্যালির আয়োজন করা হয়। গত ৮ সেপ্টেম্বর বিকালে চট্টগ্রাম মহানগরীর বায়েজীদ বোস্তামী থানাধীন বাংলাবাজার এলাকার ডেবারপাড় ব্যবসায়ী কল্যাণ সমবায় সমিতির সামনে উক্ত সুধী সমাবেশের আয়োজন […]

আরও→