জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করতে সাংবাদ সম্মেলন

জঙ্গিবাদ, ধর্মব্যবসা ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করার লক্ষ্যে ৮ দফা প্রস্তাবনা পেশ করে সংবাদ সম্মেলন করেছে হেযবুত তওহীদের বরিশাল জেলা শাখা। গত ১৮ এপ্রিল, ২০১৭ তারিখ সকাল ১১টায় বরিশাল মেট্রোপলিটন প্রেস ক্লাবে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে হেযবুত তওহীদের পক্ষ থেকে মূল বক্তব্য ও প্রস্তাবনা তুলে ধরেন হেযবুত তওহীদের কেন্দ্রীয় সাহিত্য সম্পাদক রিয়াদুল হাসান ও গণমাধ্যম কর্মীদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন হেযবুত তওহীদের কেন্দ্রীয় সহকারী সাহিত্য সম্পাদক রাকীব আল হাসান। অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা করেন হেযবুত তওহীদের সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. মাহবুব আলম মাহফুজ।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থাপিত প্রস্তাবনাগুলো হলো-
১. জঙ্গিবাদ দূরীকরণে আদর্শিক লড়াইয়ের অংশ হিসাবে ইসলামের প্রকৃত শিক্ষা তুলে ধরার জন্য হেযবুত তওহীদ কর্তৃক আয়োজিত সভা, সমাবেশ, মানববন্ধন, সেমিনার, প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শনী, লিফলেট-পুস্তিকা বিতরণসহ যাবতীয় গণসচেতনতামূলক কর্মসূচি সফল করার ক্ষেত্রে স্থানীয় প্রশাসনিক নিরাপত্তা সহযোগিতা প্রদান।
২. দলমত নির্বিশেষে সমস্ত জাতিকে সকল সুস্পষ্ট অন্যায়ের বিরুদ্ধে সুস্পষ্ট ন্যায়ের পক্ষে ঐক্যবদ্ধ করতে হবে।
৩. চলমান স্বার্থের রাজনীতি পরিহার করতে হবে। রাজনৈতিক বিভক্তি দূর করে রাজনৈতিক দলগুলোকেও দেশ ও মানুষের কল্যাণে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।
৪. ধর্মের নামে স্বার্থোদ্ধার ও অপরাজনীতি বন্ধ করতে হবে।
৫. ঔপনিবেশিক যুগের শিক্ষাব্যবস্থা ঢেলে সাজাতে হবে। বহুমুখী শিক্ষাব্যবস্থার পরিবর্তে একমুখী শিক্ষাব্যবস্থা চালু করতে হবে যেখানে জাগতিক জ্ঞানের পাশাপাশি নীতি-নৈতিকতা, ধর্মের সঠিক শিক্ষা, নিঃস্বার্থ দেশপ্রেম ও মানবতাবোধের শিক্ষা সবই থাকবে।
৬. শুধুমাত্র শক্তি প্রয়োগ করে জঙ্গিবাদ নির্মূল করা সম্ভব হবে না, কাজেই শক্তি প্রয়োগের পাশাপাশি একটি নির্ভুল আদর্শ প্রচার করতে হবে। এই কাজে মিডিয়াকে সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে হবে। মিডিয়া যেন নিরপেক্ষ অবস্থানে থেকে দেশ ও জাতির কল্যাণকে অগ্রাধিকার দিয়ে দায়িত্বশীলতা পরিচয় দেয় সেটা নিশ্চিত করতে হবে। জঙ্গিবাদ, সাম্প্রদায়িকতা, ধর্ম নিয়ে অপরাজনীতির বিরুদ্ধে যে অকাট্য যুক্তি, তথ্য, ধর্মগ্রন্থের দলিল আমরা তুলে ধরছি তা গণমাধ্যমগুলোতে ব্যাপকভাবে প্রচার করতে হবে যেন এ অন্যায়গুলোর বিরুদ্ধে জাতি শক্তিশালী চেতনার ভিত্তিতে ঐক্যবদ্ধ হতে পারে। এ ক্ষেত্রে কে কী বলল তার পরোয়া করা চলবে না।
৭. সরকারকে সর্বাবস্থায় ন্যায়ের দ- ধারণ করতে হবে। নিজ দল কি বিরোধী দল যার বেলায়ই হোক যা ন্যায় তাই করতে হবে। মনে রাখতে হবে এটাই হচ্ছে রাষ্ট্রের ধর্ম।
৮.যারা জঙ্গিবাদে বিশ্বাসী তাদেরকে পাল্টা যুক্তি প্রমাণ দ্বারা কাউনসিলিং করে তাদের মতবাদের ভুলগুলো দেখিয়ে দিতে হবে। এভাবে তাদেরকে ভ্রান্ত আদর্শের ব্যাপারে ডিমোটিভেটেড করতে হবে অর্থাৎ আকিদা সঠিক করে দিতে হবে।
সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা বলেন, আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদে আক্রান্ত বিশ্বের বহু দেশ। বিকৃত ধর্মীয় আদর্শ থেকে উদ্ভূত এই জঙ্গিবাদকে নির্মূল করতে বিশ্বময় শক্তি প্রয়োগের পন্থা বেছে নেওয়া হয়েছে। কিন্তু এখন সকলেই স্বীকার করছেন যে, শক্তি প্রয়োগের পাশাপাশি ধর্মীয় দলিল ভিত্তিক নির্ভুল আদর্শ দিয়ে জঙ্গিবাদ যে ভুল পথ তা প্রমাণ করতে হবে। অন্যথায় ধর্মব্যবসায়ীরা ধর্মবিশ্বাসী সাধারণ মানুষের ঈমানকে ভুল খাতে প্রবাহিত করে দেশে সন্ত্রাসের বিস্তার ঘটাতেই থাকবে। ফলে আমাদের এই প্রিয় মাতৃভূমিকেও ইরাক-সিরিয়ার মতো করুণ পরিণতি বরণ করতে হতে পারে। এ জন্য প্রয়োজন একটি সঠিক আদর্শের। অনুষ্ঠানে বক্তারা এ কথা বলেন এবং এই সঠিক আদর্শটি হেযবুত তওহীদের কাছে আছে বলেও বক্তৃতায় উঠে আসে।
বক্তারা দেশবাসীর প্রতি ঐক্যবদ্ধ হবার আহ্বান করে বলেন, ধর্মব্যবসায়ীদের দ্বারা প্রচারিত ধর্মের অপব্যাখ্যা থেকে বের হয়ে আমাদের ধর্মের প্রকৃত চেতনা দ্বারা জাতিকে উদ্বুদ্ধ করতে হবে। মানুষের ধর্ম হলো মানবতা, সত্য-মিথ্যা, ন্যায়-অন্যায়ের পার্থক্য বোঝা, অন্যের দুর্দশা দেখার পর হৃদয়ে দুঃখ অনুভব করা এবং সেটা দূর করার জন্য আপ্রাণ প্রচেষ্টা করা। আত্মকেন্দ্রিক স্বার্থপর মানুষ কখনোই ধার্মিক বা মো’মেন-মুসলিম হতে পারে না। প্রকৃত মো’মেন হলেন সেই ব্যক্তি যিনি আল্লাহর হুকুমের পরিপন্থী অর্থাৎ যাবতীয় অন্যায়ের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হয়ে তার জীবন-সম্পদকে মানবতার কল্যাণে উৎসর্গ করেন। সুতরাং স্বার্থপরের নামাজ নেই, স্বার্থপরের সমাজ নেই, স্বার্থপরের জান্নাত নেই। বর্তমানে আমাদের দেশে যে ষড়যন্ত্র চলছে, দেশ যে সঙ্কটে পতিত হয়েছে তা থেকে দেশকে বাঁচানো আমাদের ঈমানী দায়িত্ব ও সামাজিক কর্তব্য।
অনুষ্ঠানে হেযবুত তওহীদের জঙ্গিবাদ বিরোধী কার্যক্রমের উপর সংক্ষিপ্ত তথ্যচিত্র প্রদর্শনী করা হয় যেখানে দেখানো হয় হেযবুত তওহীদ গত কয়েক বছরে সারা দেশে ৮৩ হাজারের মতো জঙ্গিবাদ বিরোধী সভা-সমাবেশ ও প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শনী অনুষ্ঠান করেছে।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, বরিশাল মেট্রোপলিটন প্রেস ক্লাবের সভাপতি ও দৈনিক শাহনামার সম্পাদক কাজী আবুল কালাম আজাদ, বরিশাল মেট্রোপলিটন প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক আজকের বরিশালের প্রকাশক ও সম্পাদক মো. খলিলুর রহমান, বরিশাল মেট্রোপলিটন প্রেস ক্লাবের সহ-সভাপতি ও দৈনিক আজকের বরিশালের প্রধান নির্বাহী সম্পাদক এম আর প্রিন্স, দৈনিক সত্য সংবাদের প্রকাশক ও সম্পাদক এ্যাড. মো. মহসীন মন্টুসহ ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার গণমাধ্যমকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। সার্বিক তত্বাবধায়নে ছিলেন হেযবুত তওহীদের বরিশাল জেলা শাখার সভাপতি খোকন হাওলাদার।

Search Here

জনপ্রিয় পোস্টসমূহ

বেনামি লিফলেট ছড়িয়ে নাশকতা সৃষ্টির অপচেষ্টার বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন

May 22, 2017

গত ২২ মে, ২০১৭ তারিখ বরিশাল শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত প্রেসক্লাবে ধর্মব্যবসায়ীদের অপপ্রচার ও নাশকতা সৃষ্টির ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে একটি সংবাদ সম্মেলন করেছে হেযবুত তওহীদ। উজিরপুরের কয়েকটি মাদ্রাসার ছাত্রদের দ্বারা একটি নাম-ঠিকানাহীন উস্কানিমূলক বেনামী হ্যান্ডবিল প্রচারের প্রেক্ষিতে এই সংবাদ সম্মেলনটি করা হয়। এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন হেযবুত তওহীদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. মাহবুব আলম মাহফুজ। […]

আরও→

মাদকমুক্ত সমাজ গঠনে টাঙ্গাইলে সংবাদ সম্মেলন


জঙ্গিবাদ, সাম্প্রদায়িকতা, অপরাজনীতি ও মাদকমুক্ত সমাজ গঠনে করণীয় প্রসঙ্গে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রতি প্রস্তাবনা পেশ করে সংবাদ সম্মেলন করেছে হেযবুত তওহীদ। গত ২২ মে, ২০১৭ তারিখ বিকাল ৪টায় টাঙ্গাইল সদরের নিরালা মোড়স্থ পিয়াসী হোটেলের ২য় তলায় সকল ইলেক্ট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার স্থানীয় সাংবাদিকদের নিয়ে উক্ত সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। টাঙ্গাইল জেলা হেযবুত তওহীদের সভাপতি সাজ্জাদ […]

আরও→