1

 

গত ০৭ আগস্ট ২০১৬ তারিখ কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে হেযবুত তওহীদের উদ্যোগে “সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনে জনসম্পৃক্ততার বিকল্প নেই” শীর্ষক সুধী সমাবেশ ও র‌্যালি আয়োজন করা হয়। বেলা ১১টায় কুমারখালী পৌরসভার সামনে থেকে একটি র‌্যালির শুরু হয়। র‌্যালিটি হল বাজার, থানা মোড়, বাসস্ট্যান্ড হয়ে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা চত্বরে এসে একটি সংক্ষিপ্ত সমাবেশে মিলিত হয়। সমাবেশে মুখ্য আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হেযবুত তওহীদের কুষ্টিয়া অঞ্চলের আমির মনিরুয্যামান মনির। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, ‘সকল প্রকার অন্যায়-অশান্তি ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। জঙ্গিবাদ নির্মূলে প্রত্যেককে নিজ-নিজ অবস্থান থেকে সচেতন হতে হবে। ধর্মের প্রকৃত শিক্ষা প্রত্যেকটি মানুষের মাঝে ছড়িয়ে দিতে হবে। ১৬ কোটি বাঙ্গালিকে আজ ঐক্যবদ্ধ হয়ে জঙ্গিবাদমুক্ত সোনার বাংলা গড়ে তুলতে হবে। জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদ কোন ধর্মই সর্মথন করেনা, জঙ্গিবাদ কোন ধর্মের শিক্ষা হতে পারেনা। কতিপয় স্বার্থান্বেসী নামধারী আলেম, ধর্মব্যবসায়ী মোল্লা শ্রেণি ধর্মের অপব্যাখ্যা দিয়ে ধর্মপ্রাণ মানুষের ঈমানকে হাইজাক করে জঙ্গিবাদের দিকে ঠেলে দিচ্ছে।”
তিনি আরো বলেন, দীর্ঘ ২১ বছর ধরে হেযবুত তওহীদ ধর্মের প্রকৃত শিক্ষা সর্বস্তরের মানুষের মাঝে তুলে ধরে আসছে এবং সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে নিঃস্বার্থভাবে কাজ করে যাচ্ছে।’ দেশের স্বার্থে, জাতির স্বার্থে জঙ্গিবাদবিরোধী গণপ্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান জানান তিনি। এসময় আরো বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া জেলা আমির আব্দুল হান্নান খান, হেযবুত তওহীদের কুমারখালী থানা আমির আব্দুল লতিফ প্রমুখ। এসময় বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া-কর্মীসহ প্রশাসনের সদস্যগণ উপস্থিত ছিলেন। এর আগে গত ৬ আগস্ট শনিবার বিকাল ৩টায় কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলার চর খাদিমপুর মুন্সিপাড়ায় হেযবুত তওহীদের উদ্যোগে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে আমরা ঐক্যবদ্ধ’ এই স্লোগানে র‌্যালি ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

 

বক্তাগণ

 

বক্তব্য রাখছেন আজিম

বক্তব্য রাখছেন আজিম

বক্তব্য রাখছেন হেযবুত তওহীদের কুমারখালী থানা আমির আব্দুল লতিফ।

বক্তব্য রাখছেন হেযবুত তওহীদের কুমারখালী থানা আমির আব্দুল লতিফ।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

র‌্যালী

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

মিডিয়ায় প্রচার