ষড়যন্ত্রকারীরা আইনের আওতায় | হেযবুত তওহীদ

হেযবুত তওহীদের বিরুদ্ধে অপপ্রচারে লিপ্ত ষড়যন্ত্রকারীরা যখন আইনের আওতায়

  • হেযবুত তওহীদের নারী সদস্যকে ধর্ষণের হুমকী দেওয়ায় যাত্রাবাড়িতে একজন আটক

 

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে হেযবুত তওহীদের সদস্য-সদস্যাদের হুমকি প্রদান এবং হেযবুত তওহীদের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার, অপপ্রচার ও গুজব রটনার অভিযোগে রিয়াজ সরদার (৩৫) নামে একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।  গত ১৯ আগস্ট ২০১৯ রোজ সোমবার তাকে প্রথমশ্রেণির জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, ঢাকা-২১ এর আদালতে হাজির করে ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করলে আদালত ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। আসামী রিয়াজ সরদার বরিশাল জেলার গৌরনদী উপজেলার দঃ সাকোকাঠি গ্রামের মৃত লতিফ সরদারের ছেলে।

এরআগে গত ১৭ আগস্ট ২০১৯ রোজ শনিবার রাজধানীর যাত্রাবাড়ি থানায় হেযবুত তওহীদের নারী সদস্যদের কটূক্তি ও ধর্ষণের হুমকি দিয়ে ফেসবুকে আপত্তিকর বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করা হয়। ওই দিনই যাত্রাবাড়ির একটি দোকান থেকে তাকে আটক করে পুলিশ। পরে গতকাল দুপুরে তাকে আদালতে হাজির করা হয়। আদালতে আসামির সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা যাত্রাবাড়ি থানার উপ-পরিদর্শক জালাল আহমেদ। এ বিষয়ে হেযবুত তওহীদের সাধারণ সম্পাদক মসিউর রহমান বলেন, “আইনের যথাযথ প্রয়োগ হলে এভাবে সকল অপরাধীই আইনের আওতায় আসবে। হেযবুত তওহীদ কোন অন্যায় বা আইনভঙ্গ করে না, সুতরাং যারা আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করে বা করবে, হুমকি দিচ্ছে বা দিবে, তারা অবশ্যই অপরাধী।” সকল অপরাধীরাই পর্যায়ক্রমে আইনের আওতায় আসবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।